বিড়াল কি ভেজিটেরিয়ান হতে পারে?

বিড়াল কি ভেজিটেরিয়ান হতে পারে? মানুষ বিভিন্ন কারণে ভেজিটেরিয়ান হয়ে থাকে। আপনি যদি ভেজিটেরিয়ান হয়ে থাকেন, আপনি নিশ্চই ভাবতে পারেন যে, আপনার বিড়ালও কি ভেজিটেরিয়ান হতে পারবে কিনা? বিড়ালদের জন্য কোন ভেগান ফুড আছে কিনা?

বাজারে বিড়ালের জন্য অনেক ধরনের ভেজীটেরিয়ান ক্যাট ফুড পাওয়া যায়। তবে এগুলো আপনার বিড়ালকে খাওয়ানোর আগে একটু ভেবে দেখবেন। এর কারণ জানতে এই আর্টিকেলটি পড়ুন।

আপনার বিড়ালকে কি ভেগান ফুড খাওয়াতে পারবেন?

ভেজিটেরিয়ান ডায়েটে কোন ধরনের প্রাণিজ মাংস দেওয়া হয় না। তবে ডিম, দুধ, দুগ্ধজাত অন্যান্য খাবার যেমন পনির মাখন ইত্যাদি দেওয়া থাকে। ভেগান ডায়েট সম্পূর্ণ  ভাবে উদ্ভিত ভিত্তিক, এটাতে কোন ধরনের প্রাণীজ মাংস জাতীয় উপাদান যুক্ত থাকেনা। যদিও ভেগান ফুড গুলোতে সকল ধরনের সুষম পুষ্টি উপাদান থেকে থাকে তবুও একটি বিড়ালকে ভেজিটেরিয়ান বানানো উচিত না।

কারণ বিড়ালের দেহের প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদান আসে প্রাণিজ টিস্যু থেকে, উদ্ভিজ টিস্যু থেকে না। বিড়াল সম্পূর্ন রুপে একটী মাংসাশী প্রাণী, তাই একমাত্র প্রাণিজ মাংসই পারে তার দেহের প্রয়োজনীয় সকল পুষ্টি উপাদানের চাহিদা মেটাতে । 

তবে কুক্কুরদের ক্ষেত্রে এটি আলাদা। কারণ, কুকুররা সর্বভূক শ্রেনীর প্রাণি। তাই তাদের দেহের প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদান প্রাণিজ মাংস থেকেও পাওয়া যায় এবং উদ্ভিদ ভিত্তিক খবার থেকেও পাওয়া যায়। বিড়ালের অন্ত্রের ট্র্যাক্ট কুকুরের তুলনায় অনেক ছোট। একটি বিড়ালের অন্ত্র এবং দেহের দৈর্ঘ্যের অনুপাত ৪ঃ১ আর একটি কুক্কুরের অন্ত্র এবং দেহের দৈর্ঘ্যের অনুপাত ৬ঃ১।

বিড়ালকে ভেগান ফুড দেওয়া উচিত কি না?

বিড়ালদের অন্ত্র ছোট থাকে। কারণ তারা যে প্রাণী ভিত্তিক খাবারগুলো খায় সেগুলোতে কোন ফাইবার থাকেনা, ফলে তা সহজেই হজম হয়ে যায়। অন্যদিকে কুকুরের অন্ত্র বড় হওয়ার কারণে তারা উদ্ভিদ ভিত্তিক পুষ্টিগুলোও সহজে পেয়ে থাকে। কুকুরের তুলনামূলক চ্যাপ্টা মোলারস (মুখের পিছন দিকে দাঁত) থাকে, যার ফলে সে আঁশযুক্ত খাবার গুলো পিষে ফেলতে পারে। বিড়ালের মোলারস হয় ধারালো এবং তা মাংস জাতীয় খাবার ছেঁকে ফেলতে পারে। 

এছাড়া একটি বিড়ালের অগ্ন্যাশয় কুকুরের তুলনায় কম অ্যামাইলেজ তৈরি করে। অ্যামাইলেজ হল একটি এনজাইম যা শুধুমাত্র উদ্ভিদে পাওয়া যায় এমন স্টার্চগুলিকে ভেঙে দেয় । বিড়ালও অল্প পরিমাণ স্টার্চ হজম করতে পারে তবে অত্যাধিক মাত্রায় হলে বিড়ালের ডায়রিয়া হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। 

এগুলো এমন কিছু কারণ যার ফলে একটি বিড়াল কখনোই ভেজিটেরিয়ান হতে পারেনা। তবে বিড়াল ভেজিটেরিয়ান হতে পারবেনা বলে সে যে একেবারেই ফল, শশ্য বা অন্যান্য উদ্ভিজ খাবার খেতে পারেবান তা না। বরং এমন কিছু উদ্ভিজ খাবার রয়েছে যেগুলো বিড়ালের জন্য উপকারী। তবে বিড়াল যেহেতু সম্পূর্ণ রুপে মাংসাশী প্রাণী তাই তাকে সর্বদা প্রাণীজ খাবার খেতে দেওয়াই ভালো।

বিড়াল খাবার না খেলে করনীয় জানতে পড়ুন

কেন বিড়ালকে ভেগান ফুড খাওয়ানো উচিত না?

বিড়ালের দেহের জন্য পর্যাপ্ত প্রোটিন এবং অধিক পরিমাণ অ্যামিনো এসিডের প্রয়োজন হয়। বিড়ালকে ভেগান ফুড খেতে না দেওয়ার একটা গুরুত্বপূর্ণ কারণ এটা। 

একটি প্রাপ্তবয়স্ক বিড়ালের কুকুরের তুলনায় দ্বিগুণ প্রোটিনের প্রয়োজন হয়। অ্যাসোসিয়েশন অফ আমেরিকান ফিড কন্ট্রোল অফিসিয়ালস (AAFCO) এর মতে একটি বিড়ালের জন্য শুকনো পদার্থের ভিত্তিতে (যদি খাবারের সকল আদ্রতা সরিয়ে দেওয়া হয়) ২৬% ক্রুড প্রোটিন প্রয়োজন এবং একটি কুকুরের ক্ষেত্রে ১৮% ক্রুড প্রোটিনের প্রয়োজন হয়। যদিও দুধ, ডিম ভেগান ফুডের মধ্যেই পড়ে তবুও একটি বিড়ালকে শুধু মাত্র ভেগান ফুড খেতে দিলে তার দেহের প্রয়োজনীয় সকল পুষ্টি চাহিদা পরিপূর্ণ নাও হতে পারে।

প্রানিজ মাংসের পুষ্টি উপাদান

বিড়ালের দেহের জন্য একটি গুরত্বপুর্ণ পুষ্টি উপাদান হলো টাওরিন। এই টাওরিন বিড়ালের চোখের জ্যোতি, হার্ট এমনকি ইমিউন সিস্টেম ঠিক রাখতে সাহায্য করে। কুকুরের দেহ সাধারণত অন্যান্য অ্যামিনো এসিডকে টাওরিনে রূপান্তর করতে পারে কিন্ত বিড়ালের দেহ তা পারেনা। তাই বিড়ালের খাবারে পর্যাপ্ত পরিমাণ টাওরিন থাকতে হয়। তাই  AAFCO ক্যাট ফুড গুলোতে টাওরিনের একটি মিনিমাম লেভেল সেট করে দিয়েছে। 

সী ফুড এবং মাংস জাতীয় খবারাগুলোতে পর্যাপ্ত পরিমাণে টাওরিন থাকে কিন্ত উদ্ভিজ খাবারে পর্যাপ্ত টাওরিন পাওয়া যায় না। সামুদ্রিক শৈবালে কিছুটা টাওরিন থাকে তবে তা মাংস বা সী ফুডের তুলনায় খুবই কম। শুধু মাত্র টাওরিন নেই এই কারণে ভেগান ফুড বিড়ালকে খাওয়ানো যাবেনা এমন না। আরো বেশ কিছু পুষ্টি উপাদান রয়েছে যেগুলো প্রাণিজ মাংসে পর্যাপ্ত পরিমাণে রয়েছে। যেমন- 

  • আরাকাইডোনিক এসিড (এক ধরনের ফ্যাটি এসিড)
  • ভিটামিন এ
  • ভিটামিন বি১
  • ভিটামিন বি৩
  • ভিটামিন বি ১২

বেশ কয়েকটি গবেষনায় দেখা গেছে বাজারে যেসকল ক্যাট ভেগান ফুড পাওয়া যায় সেগুলোতে সকল পুষ্টি উপাদান থাকলেও তা বিড়ালের জন্য পর্যাপ্ত না। এমনকি যদি আপনি অনালাইনে ভিডিও দেখে বা বই পড়ে  বাসায় ক্যাট ফুড তৈরি করেন এবং সেখানে কিছুটা প্রাণিজ মাংসও ব্যাবহার করেন তবুও তা বিড়ালের দেহের জন্য পর্যাপ্ত হবেনা। 

বিড়ালের ডায়রিয়া হলে করনীয় জানতে ক্লিক করুন

কেন ভেগান ফুড বিড়ালের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ?

বিড়ালকে শুধুমাত্র ভেগান ফুড খেতে দিত্যে তা বিড়ালের স্বাস্থ্যের জনু ঝুঁকিপূর্ণ। কেন বিড়ালের স্বাস্থ্যের জন্য ভেগান ফুড ঝুঁকিপূর্ণ তা নিচে উল্লেখ করা হলো-

  • বিড়ালের দেহের প্রোটিনের ঘাটতি হতে পারে। ফলে বিড়ালের দৈহিক বৃদ্ধিতে ব্যাঘাত ঘটে এবং ত্বকের বিভিন্ন রোগ হতে পারে
  • আরাকাইডনিক এসিডের ঘাটতি হতে পারে। যা বিড়ালের দৈহিক বৃদ্ধিতে ব্যাঘাত ঘটায় এবং বিভিন্ন রোগের কারণ হতে পারে।
  • ভিটামিন এ এর ঘাটতি। এর ফলে বিড়ালের ত্বকে বিভিন্ন সংক্রমণ হতে পারে, বিড়ালের মুখে ঘা হতে পারে, বিড়ালের চোখের জ্যোতি কমে যেতে পারে।
  • ভিটামিন বি১ এর ঘাটতির ফলে নিউরোলজিজনিত বিভিন্ন  রোগ হতে পারে।
  • ভিড়টামিন বি৩ এর ঘাটতির ফলে বিড়ালের ত্বকে বিভিন্ন সংক্রমন হতে পারে এবং বিড়াল ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হতে পারে।
  • ভিটামিন বি ১২ এর ঘাটতির কারণে বিড়ালের দৈহিক বৃদ্ধিতে ব্যাঘাত ঘটতে পারে, বিড়াল ডায়রিয়া হতে পারে, বমি করতে পারে এবং নিউরোলিজির বিভিন্ন রোগ হতে পারে। 

Leave a Comment